আগ্রহ বেড়েছে ভুট্টাচাষে



কুমারখালী প্রতিনিধি

অনুকূল আবহাওয়া, সময়মত বীজ প্রাপ্তি ও কৃষি অফিসের দিকনির্দেশনা অব্যাহত থাকায় কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় চলতি মৌসুমে ভুট্টা চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকের। অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে এবার ৫১০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা আবাদ করেছে কৃষক। যা গতবছরের চেয়ে ৫৫ হেক্টর বেশি। তবে সঠিক প্রক্রিয়াজাতকরণের ব্যবস্থা ও বাজারজাতকরণের নিশ্চয়তা পেলে উপজেলায় আগামী দু-এক বছরের মধ্যে ভুট্টাচাষে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে বলে ধারণা করছেন কৃষি কর্মকর্তারা। উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, এবছর উপজেলায় ভুট্টা চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছিল ৪৫৫ হেক্টর জমি। কিন্তু অনুকূল আবহাওয়া, সময়মত পর্যাপ্ত বীজ প্রাপ্তি ও কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৫৫ হেক্টর বেশি জমিতে ভুট্টার আবাদ করেছে কৃষক। এবার উপজেলায় উন্নতমানের সুপার সাইন, মিরাক্কেল, সান সাইন, কাবেরি , ডন, ১১১ জাতের ভুট্টা আবাদ করা হয়েছে। চাষীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতি একর জমিতে ভুট্টাচাষ করতে খরচ হয় ২৫ থেকে ২৮ হাজার টাকা। উৎপাদন ভাল হলে প্রতি একরে প্রায় ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকার ভূট্টা পাওয়া যায়। এছাড়াও ভুট্টাচাষ গোখাদ্য এবং চাষীদের পারিবারিক জ্বালানী কাঠের চাহিদাও মেটায়। এ বছর সবচেয়ে বেশি ভুট্টার চাষাবাদ হয়েছে উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নে। মাটির উর্বরতা এবং অনুকূল আবহাওয় থাকায় সেখানে ২৪০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার আবাদ করেছে কৃষক। চাঁদপুর ইউনিয়নের ভুট্টা চাষী নজরুল ইসলাম বলেন, চার একর জমিতে ভুট্টাচাষ করেছি। এবার বাম্পার ফলন হবে ভুট্টাই। এবছর এক লাখ ৭০ হাজার টাকা খরচ করেছি। আশা করছি ৬০০ মণ ভুট্টা পাব। যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা। উপজেলা কৃষি অফিসার দেবাশীষ কুমার দাস বলেন, অনুকূল আবহাওয়া ও ফলন ভাল হওয়ায় ভুট্টাচাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকের। লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৫৫ হেক্টর বেশি জমিতে ভূট্টার চাষাবাদ হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *