ইবির প্রধান প্রকৌশলী তারেককে অফিসে ঢুকে হুমকি


অভিযোগ ঠিকাদার রাজু ও কোমলের বিরুদ্ধে

ম্যাক ইঞ্জিনিয়ারিং লিঃ কে মেগা প্রকল্পের কাজ পাইয়ে দেয়ার চাপ

ইবি প্রতিনিধি

কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলীকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে দুই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় প্রধান প্রকৌশলী (ভারঃ) মুন্সী সহিদ উদ্দীন মোঃ তারেক দুই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারের নিকট লিখিত অভিযোগে প্রধান প্রকৌশলী (ভারঃ) মুন্সী সহিদ উদ্দীন মোঃ তারেক উল্লেখ করেন যে, গত ১৬ জুন অফিসে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় অনুমানিক সাড়ে ১২ টার সময় চলমান পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম.এ. ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান ভবনের উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ কাজের ঠিকাদার ম্যাক ইঞ্জিনিয়ারিং লিঃ এর প্রতিনিধি মোঃ রাজু আহম্মেদ এবং মোঃ আনিচুর রহমান কোমল আমার অফিস কক্ষে ঢুকে অশোভন আচরণ ও হুমকি প্রদান করে এবং বলে যে, ১০ তলা ভিত্তির উপর ১০ তলা ছাত্র হল নির্মাণ (হল নং-২, আসন সংখ্যা-১০০০ ছাত্র) (আইডি নং-৩৫৫১৪৮) এবং ১০ তলা ভিত্তির উপর ১০ তলা ছাত্রী হল নির্মাণ (হল নং-২, আসন সংখ্যা-১০০০ ছাত্রী) (আইডি নং -৩৫৫১৪৯) এর মামলা নিঃশর্তভাবে প্রত্যাহার করে নিয়ে ম্যাক ইঞ্জিনিয়ারিং লিঃ কে দিতে হবে। এছাড়া আগামীতে যে কোন একটি কাজ তাদেরকে দিতে হবে নইলে আপনাকে সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

লিখিত অভিযোগে মুন্সী মোঃ তারেক আরও উল্লেখ করেন যে, আমি সরকারী দায়িত্ব পালন করার কারণে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি। লিখিত অভিযোগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে পরবর্তী করণীয় বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধও জানান প্রধান প্রকৌশলী (ভারঃ) মুন্সী সহিদ উদ্দীন মোঃ তারেক।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিষ্ট্রার মু. আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতার স্বীকার করে বলেন, এমন একটি লিখিত অভিযোগ হাতে পেয়েছি।

প্রধান প্রকৌশলী (ভারঃ) মুন্সী সহিদ উদ্দীন মোঃ তারেক বলেন, হুমকির বিষয়ে আমি আমার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। প্রশাসন যা বলবে আমি সেই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবো।

এ ব্যাপারে হুমকিদাতা দুই ঠিকাদারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও সম্ভব হয়নি।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে থানায় কোন লিখিত অভিযোগ পায়নি। পাইলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সুত্রে জানা গেছে, এর আগেও ঠিকাদার মোঃ রাজু আহম্মেদ এবং মোঃ আনিচুর রহমান কোমলের বিরুদ্ধে প্রধান প্রকৌশলী (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ মকবুল হোসেনকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছিল। সে সময় ২০১১ সালের ৬ আগস্ট প্রধান প্রকৌশলী মকবুল হোসেন ঠিকাদার রাজু ও কোমলের বিরুদ্ধে ভাইস চ্যান্সেলরের নিকট লিখিত অভিযোগও করেছিলেন। বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় এ বিষয়ে সংবাদও প্রকাশিত হয়েছিল।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *