জনসনের টিকা ‘ডেল্টা ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকর’



এনএনবি :

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসন অ্যান্ড জনসন (জেঅ্যান্ডজে) উদ্ভাবিত এক ডোজের টিকা অতি সংক্রামক ডেল্টা ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকর এবং টিকাগ্রহণের পর আট মাস পর্যন্ত এর কার্যকারিতা থাকে বলে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জনসন অ্যান্ড জনসন সাম্প্রতিক দুটি গবেষণা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে জানায়, মূল ভাইরাসের ধরনটির বিরুদ্ধে তাদের টিকা যতটা কার্যকর, তার চেয়ে ডেল্টা ধরনটির বিরুদ্ধে সামান্য কম কার্যকর।
তবে সাউথ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া বেটা ধরনের চেয়ে ভারতে শনাক্ত ডেল্টা ধরনের বিরুদ্ধে এ টিকা বেশি কার্যকর বলে জানিয়েছে উৎপাদক কোম্পানি।
গবেষকদের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, জেঅ্যান্ডজের টিকা নেওয়ার পর শরীরে যে অ্যান্টিবডি গঠিত হয় সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা শক্তিশালী হতে থাকে।
এই গবেষণার ফলাফল নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জেঅ্যান্ডজে জানিয়েছে, এ বিষয়ে করা দুটি গবেষণাপত্রই অনলাইনে প্রকাশের জন্য বৃহস্পতিবার জমা দেওয়া হয়েছে।
এর মধ্যে একটি গবেষণাপত্র একটি বিজ্ঞান বিষয়ক সাময়িকীতে প্রকাশের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। উভয় গবেষণাই ছোট পরিসরে, এবং গবেষকেরা বলছেন, জনস্বার্থের কথা বিবেচনায় নিয়ে তারা গবেষণার ফলাফল দ্রুত প্রকাশ করেছেন।
বস্টনে বেথ ইসরায়েল ডিয়াকোনেস মেডিকেল সেন্টারের অনুজীব বিজ্ঞানী ড. ড্যান বারোচ বলেন, করোনাভাইরাসের বিভিন্ন ধরনের বিরুদ্ধে টিকার কার্যকারিতা মানুষ যতোটা আশা করছে তার চেয়ে আরও ভালো হবে। অনেক বেশি বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানো হচ্ছে, তাই আমরা এই গবেষণার ফল সরাসরি জনসম্মুখে প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অতি সংক্রামক ডেল্টা ধরনটির ঝুঁকি নিয়ে জনমনে উদ্বেগ রয়েছে, বিশেষ করে যারা এরইমধ্যে টিকা নিয়েছেন তাদের অনেকেরই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে তারা কি ঝুঁকিমুক্ত কিনা।
যুক্তরাষ্ট্রে এক কোটি ১০ লাখ মানুষ জেঅ্যান্ডজের টিকা নিয়েছে। সেদেশের জনস্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত যতগুলো কোভিড-১৯ এর টিকার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে সবগুলোই করোনাভাইরাসের বিদ্যমান সবগুলো ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকর।
তবে এতোদিন পর্যন্ত শুধু ফাইজার-বায়োএনটেক এবং মডার্নার টিকার তথ্যউপাত্তের ভিত্তিতেই এই বক্তব্য দেওয়া হচ্ছিল। এরসঙ্গে এখন জেঅ্যান্ডজের টিকাও যুক্ত হল।
যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে নতুন করে যারা করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছেন, তাদের প্রতি চারজনের একজনের দেহে ডেল্টা ধরনের উপস্থিতি মিলেছে।
ইমপেরিয়াল কলেজ লন্ডনের একজন রোগপ্রতিরোধবিদ ড্যানি অল্টমান বলেন, এটা মোটামুটি স্পষ্ট যে সবগুলো টিকাই এখন পর্যন্ত জনসাধারণকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) এবং মর্গ থেকে দূরে রাখতে সক্ষম হয়েছে, অন্তত বিজ্ঞানীরা প্রথমে যতটা আশা করেছিলেন তার চেয়ে অনেক বেশি ভালো ফলাফল এটা।

টি


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *