তাহারেই পড়ে মনে (বিশেষ পর্ব)



(এমপি মনোরঞ্জনশীল গোপাল মহোদয়ের জন্মদিন উপলক্ষে)

২৯ নভেম্বর ২০০৯ সাল আমি দিনাজপুর জেলার কাহারোল থানার ওসির দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। কান্তনগরে তখন কান্তমেলা চলছিল। কান্তমেলায় আমার ফোর্সের ডিউটি চেক করার জন্য থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মাসুদকে সাথে নিয়ে মেলায় উপস্থিত হয়ে একজন সৌম্য সুন্দর মুখভরা হাসিখুশি মানুষকে কিছু লোকের সাথে দেখতে পেলাম। আমার সেকেন্ড অফিসার এগিয়ে যেয়ে সেই মানুষটিকে সালাম দিয়ে আমাকে দেখিয়ে বললেন স্যার ইনি আমাদের নতুন অফিসার ইনচার্জ। শোনার সাথে সাথেই তিনি আমার কাছে এগিয়ে এসে আমার সাথে করমর্দন করলেন। এসআই মাসুদ বললেন ইনি আমাদের এমপি গোপাল স্যার। আমিও এমপি মহোদয়ের সাথে হাসিমুখে করমর্দন করলাম। প্রথম দর্শনেই হাসিখুশি মুখভরা মানুষটিকে ভালো লেগে গেল। তারপর থেকে কাহারোলের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন ঘটানোর জন্য এমপি মহোদয়ের সাথে এক ভোর থেকে আরেক ভোর পর্যন্ত কাহারোল খানার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়িয়েছি। কি শীত কি গ্রীষ্ম কোন কিছুকেই প্রতিবন্ধকতা মনে করিনি। সব সময় আইনের কথা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে এমপি মহোদয়-এর সংস্পর্শে থেকেছি। তারপর আমি কাহারোল থানা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের যে বিপ্লব ঘটিয়েছি তার পুরোধার ছিলেন এমপি মহোদয়। কাহারোল থানায় আমি যোগ দেওয়ার সময় থানা প্রাঙ্গণে কোন গোলঘর ছিলনা, এমপি মহোদয়ের সহানুভূতিপূর্ণ আনুকূল্যে আমি কাহারোল খানায় গোলঘর স্থাপন করেছিলাম। এ ছাড়া কমিউনিটি পুলিশিং-এর বিভিন্ন সভায় আমি এমপি মহোদয়কে সাথে নিয়ে আমজনতার সাথে মতবিনিময় করেছি। সুন্দরপুর কাচারী বাজারে অনুষ্ঠিত কমিউনিটি পুলিশিংয়ের বিশাল সমাবেশ আজও কাহারোলবাসী ভুলে যায়নি। সেই অনুষ্ঠানে এমপি মহোদয়কে সাথে নিয়ে কমিউনিটি পুলিশিংয়ের আদি রুপ চৌকিদার দফাদারদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণ করেছি যা এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছিল। সেই অনুষ্ঠানে ২০ হাজারের মত মানুষ জড়ো হয়েছিল এমপি মহোদয়কে একবার দেখে তার মূল্যবান কথা শোনার জন্য। তারা আমার সম্পর্কেও জানতো এবং আমার কথা শোনার জন্যেও তাদের আগ্রহ ছিল। আমি আমার কর্ম জীবনের তাগিদে কাহারোল খানা থেকে অন্যত্র চলে এসেছি, কিন্তু চলে আসলেও এমপি মহোদয়ের সাথে আমার নাড়ির বন্ধন আজও অটুট আছে। আমার লেখা ‘এক পুলিশের না বলা গল্প’ বইটির মোড়ক ২০২০ সালের বই মেলায় উন্মোচন করে তিনি আমাকে কৃতার্থ করেছেন। আজ এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল মহোদয় এর জন্মদিন। পৃথিবী সৃষ্টি হওয়ার পর পুষ্প কাননে এর যত ফুল ফুটেছে আর ভবিষ্যতেও যত ফুল ফুটবে আজকে এমপি মহোদয়ের এই শুভ জন্মদিনে সে সব ফুলের ফুলেল শুভেচ্ছা জানাই তাঁকে। তিঁনি যেন তাঁর নেওয়া জনসেবাব্রতকে সাথে করে সামনে এগিয়ে যেয়ে তার সংসদীয় এলাকার মানুষকে ভালো রাখতে পারেন এটাই কামনা করি। তিনি যেন শতায়ু হন। আজকের এই বিশেষ দিনে আমার বারবার শুধু এম পি মনোরঞ্জন শীল গোপাল মহোদয়কে মনে পড়ে।
(লেখকঃ মোঃ শহীদুল্লাহ, সাবেক, পুলিশ কর্মকর্তা)


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *