দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দরপত্র দাখিলে অনিয়মের অভিযোগ


নিজস্ব প্রতিবেদক

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দরপত্রে অনিয়মের অভিযোগ করেছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার। অনিয়ম ও দুর্নীতি করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খাবার পরিবেশন ও পুরাতন কাপড় ধোলায়ের টেন্ডার জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে ঠিকাদার ও এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছিল। দরপত্র জমার শেষ দিন ছিল গতকাল সোমবার অফিস সময় পর্যন্ত। ডায়েট ও ষ্টেশনারী সামগ্রী ক্রয়ে আহ্বান করা দরপত্রে এ অনিয়মের অভিযোগ করা হয়। উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এ ধরণের দূর্নীতির প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে দলীয় নেতা-কর্মীরা। তারা দরপত্র বাতিলের দাবীতে আজ (মঙ্গলবার) সকাল ১০টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ঘেরাও কর্মসূচী পালন করবেন বলে সূত্রে জানা গেছে। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জন্য ডায়েট ও ষ্টেশনারী সামগ্রী সরবরাহের জন্য আহ্বান করা দরপত্র নিয়ম মাফিক না করে উপজেলা চেয়ারম্যানের যোগসাজসে গোপনে তা ভাগাভাগি করা হয়েছে। এখানে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারদের না জানিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা তাদের মনোনীত ব্যক্তিকে দিয়ে দরপত্র দাখিল করানো হয়েছে। টেন্ডার জমা দেওয়ার সময় শেষ হলে, হঠাৎ অনৈতিকভাবে গোপনে হিসাব রক্ষক শামীনুজ্জান টেন্ডার দিচ্ছে এমন অভিযোগ এনে হিসাব রক্ষক এর অফিসের নাম ফলক ভাংচুর করে উত্তেজিত জনতা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, হিসাব রক্ষক শামীনুজ্জানের যোগসাজশে করোনার লকডাউন চলাকালীন সময়ে গোপনে কাউকে না জানিয়ে, টেন্ডারের কাজ সম্পর্ণ করছে সে। তাই কিছু ব্যক্তি এই অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করতে এলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ভাংচুর করে এবং এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হিসাব রক্ষক শামীনুজ্জান জানান, নিয়ম অনুসারে তিনটা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে স্বচ্ছতার সাথে টেন্ডার জমা শেষ হয়েছে। যাচাই বাচায় শেষে টেন্ডার দিবেন কমিটি। দৌলতপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তিনি দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডায়েট ও ষ্টেশনারী সামগ্রী সরবরাহ করে আসছেন। অথচ সোমবার দরপত্র দাখিল হলো আমরা কেউ জানলাম না এটা হতে পারে না। তিনি দরপত্র বাতিল করে পুনরায় নিয়ম মাফিক দরপত্র আহ্বানের দাবি জানান। এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদুল হাসান তুহিন বলেন- ১৪দিন আগে বিভিন্ন পত্রিকায় দরপত্র আহ্বানের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল। গতকাল সোমবার ছিল দরপত্র দাখিলের শেষ দিন। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তা ও পুলিশের উপস্থিতিতে দরপত্র দাখিল করা হয়। এখানে নিয়ম মাফিক সবকিছু করা হয়েছে। দরপত্র দাখিলে অনিয়ম হয়েছে এমন অভিযোগ সত্য নয় বলে তিনি দাবি করেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *