পদ্মা সেতুর অগ্রগতি সাড়ে ৯৩.২৫ ভাগ



আলা ডেস্ক

নদী ভাঙনে বিলীন হয়ে যাওয়ার পর ইউরোপ থেকে নতুন তৈরি করে আনা ১৯২টি স্ট্রিনজার পদ্মা সেতুতে স্থাপন শুরু হয়েছে। এর আগে সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে ঘষামাজা ও রং করে এটি স্থাপন উপযোগী করা হয়। স্ট্রেনজার স্থাপনের ফলে স্ল্যাব বসানোতে নতুন গতি পাচ্ছে। এখন মূল সেতুর অগ্রগতি ৯৩ দশমিক দুই পাঁচ ভাগ এবং সার্বিক অগ্রগতি সাড়ে ৮৫ শতাংশ।
বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার স্মারক এখন পদ্মা সেতু। সেতুর নিচতলায় রেললাইনে বাকি থাকা ৯শ’ মিটার এলাকায় রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো চলছে এখন। ২ হাজার ৯শ’ ৫৯টি রেলওয়ে স্লাবের মধ্যে ২ হাজার ৬ শ’ ২০ এবং ২ হাজার ৯ শ’ ১৭টি রোডওয়ে স্লাবের মধ্যে ২ হাজার ৪ শ’ ১০টি স্থাপন হয়ে গেছে।
চায়না মেজর ব্রিজ প্রকৌশলী ইয়াং ইয়াং বলেন, লুক্সেমবার্গ থেকে আনা প্রতিটি সাড়ে ৭ মেট্রিক টন নতুন স্ট্রেনজার স্থাপনে ব্যবহার করা হচ্ছে ভারি ভারি যন্ত্র। সেতুর পূর্ণাঙ্গতার কর্মযজ্ঞে সর্বাত্মক লকডাউনেও অংশ নিচ্ছেন হাজারও শ্রমিক। পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ রজব আলী বলেন, ১২ গ্রুপে নতুন ৪৮টি স্ট্রেনজার বসছে। বাকিগুলোও আগামী মাসের মধ্যে বসানোর টার্গেট রয়েছে।
প্রতিটি স্প্যানে বসছে ৩২টি করে স্ট্রেনজার। এরপরই বসনো হচ্ছে স্ল্যাব।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *