পাংশায় গড়াই সেতু পরিদর্শন করলেন এমপি জিল্লুল হাকিম


admin প্রকাশের সময় : মে ২৮, ২০২২, ৮:১৪ পূর্বাহ্ন /
পাংশায় গড়াই সেতু পরিদর্শন করলেন এমপি জিল্লুল হাকিম

পাংশা(রাজবাড়ী)প্রতিনিধিঃ ঢাকা বিভাগের রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার কশবামাজাইল ইউপির নাদুরিয়া ঘাট এবং যশোর বিভাগের মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার আমবোলশাহ ইউপির সংযোগ স্থালে (লাঙ্গল বাধ বাজারের ভাটিতে) নব নির্মীত সেতু পরিদর্শন কালে রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্বা মোঃ জিল্লুল হাকিম প্রধান অতিথী হিসাবে সেতু পরিদর্শন কালে বলেন গড়াই নদীর ২ পারের বাসীন্দারদের স্বপ্ন পূরন হতে চলেছে। তিনি বলেন এই সেতুর নির্মান কাজ শেষ হলে এই সেতুটি গড়াই নদীর ২ পারের বাসীন্দারদের কাছে একটি মাইল ফলক হয়ে থাকবে। তিনি বলেন রাজবাড়ীর পাংশা এবং কালুখালী উপজেলাবাসী তাদের উৎপাদিত কৃষিপূন্য বিভিন্ন ফসলয়াদি লাঙ্গলবাধ বাজারে ক্রয় বিক্রয় এবং নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষপত্র ক্রয় এবং বিক্রয়ের জন্য শুষ্ক মৌসুমে গড়াই নদীর উত্তপ্ত বালির উপর দিয়ে পায়ে হেঁটে এবং বর্ষা কালে জীবনের ঝুকি নিয়ে নৌকায় গড়াই পাড় হয়ে বা অনেক কষ্ট শ্বিকার করে লাঙ্গল বাধ বাজারে আসতে হয়। এমন কি যশোর বিভাগের মাগুড়া জেলা সহ বিভিন্ন জেলায় যাতায়াত করতে হয় কিন্ত বাধ সাদে গড়াই নদী পাড়াপাড় নিয়ে। তেমনই গড়াই নদীর দক্ষিন অংশের লোকজন গড়াই নদীর উত্তর অঞ্চলে যাতায়াত বা ঢাকার সাথে যোগাযযোগ করতে অনেক কষ্ট এবং দূভোর্গ পুহাতে হয়ু। রাজবাড়ী-২আসনের সংসদ সদস্য জিল্লুল হাকিম বলেন গড়াই নদীর ২ পারের বাসিন্দার কষ্টের কথা বিবেচনা করেই গড়াই নদীর উপর সেতু নির্মান করা হচ্ছে। তিনি বলেন এই সেতুর নির্মান কাজ শেষ হলে ২ পারের বাসিন্দারদের মধ্যে একটি মিলন মেলায় পরিনত হবে। সেই সাথে ২ এলাকাবাসীদের মধ্যে রাজনৈতিক , সামাজিক, সংস্কৃতিক, বিভিন্ন কর্মকান্ড এবং অর্থনৈতিকসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন তরানিন্ত হবে। সর্বশেষে তিনি এম ,এম বির্ল্ডাস প্রকল্পের বা প্রতিষ্টানের মালিক পক্ষ কে যথা সময়ের মধ্যে সেতুর নির্মান কাজ শেষ করে কর্তৃপক্ষের নিকট বুঝে দেওয়ার কথা ও বলেন। এ সময় বিশেষ অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মিসেস সাঈদা হাকিম, এম এম বিল্ডার্স প্রকল্প বা প্রতিষ্টানের মালিক বা ঠিকাদার নূর উদ্দিন বাবুল বলেন গড়াই সেতুন নির্মান কাজ প্রায় ৪০ ভাগ শেষ হয়েছে এবং কাজের মান যধাযথ রেখে কর্তৃপক্ষের কাছে বুঝে দেওয়া হবে। পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আলী, পাংশা থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান, পাংশা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খন্দকার সাইফুল ইসলাম বুরো ,পাংশা উপজেলা প্রকৌশলী জাকির হাসান বলেন ঠিকাদার প্রতিষ্টানের নিকট হতে গড়াই সেতুর নির্মান কাজ যথাযথ ভাবে বুঝে নেওয়ার জন্য আমাদের অফিস হতে একজন সহকারী প্রকৌশলী প্রায়ই দেখবাল করে থাকেন। পাংশা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি এ,কে,এম শফিকুল মোরশেদ আরুজ, কশবামাজাইল ইউপির চেয়ারম্যান শাহরিয়ার সুফল মাহমুদ স্থানীয় মান্যগন্য ব্যক্তিবর্গ বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কশবামাজাইল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ফজলুল হক, সাবেক চেয়ারম্যান শামসুউদ্দিন শ্যাম মন্ডল, সাওরাইল ইউপির চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলী, পাট্টা ইউপির চেয়ারম্যান আঃ রব মুনা বিশ্বাস, এম, এম বিল্ডার্স প্রকল্প বা প্রতিষ্টানের প্রকল্প ম্যানেজার বিজন কুমার বাড়ই, হিসাব রক্ষণ রিয়াদ হোসেন, সুপার ভাইজার আবুস সোবাহান, বি এম ডি উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক খয়বর আলী বিশ্বাস, মাষ্টার আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা, মাষ্টার সামসুউদ্দিন মোল্লা, রুস্তম আলী বিশ্বাস, সুপার আব্দুল হাই, সুপার রফিকুল ইসলাম, ব্যবসায়ী আবু দাউদ শেখ, সাবেক মেম্বর বাদশা, ব্যবসায়ী আজাদ ভান্ডারীসহ গড়াই নদীর ২ পাড়ের হাজারও স্থানীয় মান্যগন্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কশবামাজাইল ইউপি আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মুশিউর রহমান পিল্টু জোয়াদার।