ফের দৈনিক শনাক্তের বিশ্ব রেকর্ড ভারতে



আলো ডেস্ক

করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারতে টানা চতুর্থ দিনের মতো তিন লাখেরও বেশি রোগী শনাক্ত ও দুই হাজারের বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।
রোববার সকালে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আগের ২৪ ঘণ্টায় তিন লাখ ৪৯ হাজার ৬৯১ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে।
মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে বিশ্বজুড়ে কোথাও একদিনে এত রোগী আর শনাক্ত হয়নি। নতুন শনাক্তদের নিয়ে ভারতে মোট কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা এক কোটি ৬৯ লাখ ৬০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
ওই একই সময় দেশটিতে আরও দুই হাজার ৭৬৭ জনের মৃত্যু হওয়ায় করোনাভাইরাসজনিত কারণে মৃতের মোট সংখ্যা এক লাখ ৯২ হাজার ৩১১ জনে দাঁড়িয়েছে।
১৫ এপ্রিলে পর থেকে দেশটিতে প্রতিদিন দুই লাখেরও বেশি নতুন সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। হাসপাতালগুলো রোগীতে উপচে পড়েছে। স্থান সংকুলান না হওয়ায় অনেক হাসপাতাল রোগী ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে।
হাসপাতালের বাইরে ট্রলিতেই বিনা চিকিৎসায় অনেক রোগীর মৃত্যু হচ্ছে। অপরদিকে হাসপাতালগুলোতেও অক্সিজেন অভাবে রোগীরা দমবন্ধ হয়ে মারা যাচ্ছে। জরুরি বার্তার বন্যা বয়ে যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে।
দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যায় এখন প্রতিদিনিই নতুন বিশ্ব রেকর্ড হচ্ছে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহৎ জনসংখ্যার দেশটিতে।
এনডিটিভি জানিয়েছে, গত ৪৮ ঘণ্টায় দিল্লির অনেকগুলো শীর্ষ হাসপাতাল অক্সিজেন সংকটের কথা জানিয়েছে জরুরি বার্তা পাঠিয়েছে। নগরীর জয়পুর গোল্ডেন হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে শুক্রবার ২৫ জন কোভিড-১৯ রোগীর মৃত্যু হয়েছে।
দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল শনিবার দেশটির অন্যান্য রাজের মুখ্যমন্ত্রীদের কাছে বার্তা পাঠিয়ে তাদের কাছে অতিরিক্ত অক্সিজেনের মজুদ থাকালে তা দিল্লিকে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।
রাজ্যগুলোর মধ্যে সংক্রমণের শীর্ষে থাকা মহারাষ্ট্রে ৬৭ হাজার নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। কর্নাটক ও পশ্চিমবঙ্গে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক নতুন রোগী শনাক্তের রেকর্ড হয়েছে।
কর্নাটকে প্রায় ৩০ হাজার নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এদের মধ্যে রাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে শনাক্ত হয়েছে ১৭ হাজারেরও বেশি রোগী। এর আগে শহরটিতে একদিনে এত রোগী শনাক্তের ঘটনা আর ঘটেনি।
পশ্চিমবঙ্গে দৈনিক শনাক্তের নতুন রেকর্ড হয়েছে। একদিনে ১৪ হাজার ২৮১ জন নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছে। দেশজুড়ে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বগতির মধ্যেও রাজ্যটিতে নির্বাচনী সমাবেশের আয়োজন করায় রাজনীতিকরা তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *