ভেড়ামারায় প্রকাশ্যে দিবালোকে কৃষকের কলাগাছ কর্তন



শাহ জামাল, ভেড়ামারা

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় প্রকাশ্যে দিবালোকে কৃষকের সহস্রাধিক কলাগাছ কেটে দিয়েছে দৃর্বৃত্তরা। এতে প্রায় ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক। আতংকিত কৃষক এখন শংকায় পড়েছে ৫ বিঘা পুকুরে লক্ষ লক্ষ টাকার মাছ নিয়ে। তার টেনশন ওই দৃবৃত্তরা আরো ক্ষতি করার লক্ষ্যে যে কোন সময় পুকুরে বিষ ঢেলে দিয়ে মাছ মেরে ফেলতে পারে। লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, ভেড়ামারার ১৬ দাগ গ্রামে হেদায়েতউল্লাহ কাজলের ৭ বিঘা জমি ১০ বছরের জন্য লীজ নেয় ওই এলাকারই কৃষক রবিউল ইসলাম। ৪ বছর শেষ হয়ে ৫ বছরে পড়েছে চুক্তির সময় কাল। জমি লীজ নিয়েই ৫ বিঘা জমিতে পুকুর কেটে মাছে চাষ শুরু করে সে। পুকুরের চারিদিকে সহ ২ বিঘা জমিতে সে লাগায় ফলন্ত কলাগাছ। ভালোই চলছিল সব কিছু। এর মধ্যে জমির মালিক হেদায়েতউল্লাহ কাজল এবং তার পুত্র শুভ কৃষক রবিউল কে জমি ছেড়ে দিতে বলে। সে সরাসরি তা নাকচ করে দিলে গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় প্রকাশ্যে দিবালোকে প্রায় সহ¯্রাধিক ফলন্ত কলাগাছ ধারালো অস্ত্র দিয়ে কেটে ফেলে। মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যায় এক হাজারেরও বেশি ফলন্ত কলা গাছ। এতে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে কৃষক রবিউল ইসলাম ভেড়ামারা থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। তিনি বলেন, জমির মালিক হেদায়েতউল্লাহ’র সাথে আমার ১০ বছরের চুক্তি হয়েছিল। ৫ বছরের জন্য দেড় লক্ষ টাকা অগ্রীম দিয়েছি। ৪ বছর শেষ হলো মাত্র। এখনো ৬ বছর বাকি। এরই মধ্যে জমির মালিক এবং তার পুত্র শুভ আমাকে উচ্ছেদ করতে আমার লাগানো ফলন্ত ১০০০’র বেশি কলাগাছ কেটে দিয়ে আমাকে সর্বশান্ত করে দিয়েছে। ৫ বিঘা পুকুরে ৫/৬ লক্ষ টাকার মাছ রয়েছে। আমার শংকা, কখন যে ওই দৃবৃত্তরা আমার পুকুরে বিষ ঢেলে দিয়ে আমাকে আরো নিঃস্ব করে ফেলবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *