মেম্বার পদে রিংকুর উপরই আস্থা চাপড়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডবাসীর



সৌরভ হোসাইন

দেশজুড়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। সম্ভাব্য প্রার্থীদের ব্যানার ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে হাটবাজার। চায়ের দোকানে চলছে নানা আলোচনা। কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ৬নং চাপড়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড এর মেম্বার পদ প্রার্থী হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন সাজেদুল কালাম (রিংকু)। জনসেবার কারণে সাধারণ মানুষের কাছে তিনি আশ্বাভাজন ব্যক্তি হিসেবে ব্যাপক সাড়া তুলে সুপরিচিতি লাভ করেনে এবং একজন উদীয়মান তরুণ সমাজসেবক হিসেবে। জনপ্রতিনিধি না হয়েও দীর্ঘদিন ধরে তিনি নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন সাধারণ মানুষের সেবায়। জানায়ায় কিছুদিন আগে ইছাখালীতে আগুনে পুড়ে যাওয়া দুইটি পরিবারকে একমাসের খাদ্যসহ বাড়ী তৈরির জন্য দুই হাজার ইট,দুইটি শোবার খাট নিজ অর্থায়নে সহযোগিতা করেন। সাধ্য অনুযায়ী সাহায্য করেন সাধারণ মানুষের। করোনার এই দুর্যোগে তিনি শুরু থেকে তিনি তার সাধ্য অনুযায়ী সাধারণ মানুষের পাশে থেকে বিভিন ধরনের সাহায্য সহযােগিতা করে গেছেন। তিনি নিজেকে মানুষের সেবায় উৎসর্গ করে দিতে চান। স্থানীয় সাধারণ জনগণ বলেন, তিনি তাদের সকল বিপদে আপদে এগিয়ে আসেন। রাত-দিন যখনই চাই আমরা তাকে পাশে পাই। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে উন্নয়নের স্বার্থে তরুণ সমাজসেবক সাজেদুল করিম (রিংকু)কে মেম্বার হিসেবে দেখতে চাই। দল-মত নির্বিশেষে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ তার আচার-ব্যবহারে মুগ্ধ। তাছাড়াও তিনি বিভিন্ন সামাজিক কাজে স্বে”াসেবী হিসেবে নিবেদিত প্রান। তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে মানুষের সেবা ও ব্যক্তিগতভাবে। এলাকার অসহায়-গরীবদের সেবায় নিজেকে নিয়োাজিত রেখেছেন। ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী সাজেদুল করিম (রিংক)ু বলেন, আমাকে যদি জনগণ সুযোগ দেয় তাহলে আমি নির্বাচিত হয়ে প্রথমে অবহেলিত চাপড়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সকল রাস্তাঘাট নির্মাণ করবো এবং যােগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটাবো। বাল্যবিবাহ ও মাদক নির্মূল করবো। সর্বোপরি ৭নং ওয়ার্ডকে একটি মডেল ওয়ার্ড হিসেবে রূপান্তর করবো। আরো বলেন, আমি যেন সারা জীবন গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারি এবং সৎ কাজ করতে পারি আল্লহ রাব্বুল আলামিনের কাছে এটাই আমার চাওয়া।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *