সুপার লিগকে খেলাই মনে করেন না গার্দিওলা



আলো ডেস্ক

ইউরোপীয় ফুটবলে ঝড় তুলেছে সুপার লিগ। এলিট ক্লাবগুলোর এই টুর্নামেন্ট নিয়ে সমর্থকরা দ্বিধাবিভক্ত। বরং পক্ষের চেয়ে এর বিপক্ষেই অবস্থান বেশি। এমনকি সাবেক ফুটবলার এবং কোচদের অনেকেই এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। সুপার লিগ নিয়ে লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটির সমর্থকরা তো রীতিমত আন্দোলন করছেন। ফিফা ও উয়েফাও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে অংশগ্রহণে রাজি ক্লাবগুলোর খেলোয়াড়দের আন্তর্জাতিক ফুটবলে নিষিদ্ধ করার কথা বলে। এমনকি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের যে কয়টি দল অংশ নিতে যাচ্ছে তাদের থামাতে আসরে নামছেন খোদ ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। মুখ খুলেছেন সাবেক ইংলিশ তারকা ফুটবলার ডেভিড ব্যাকহামও। কিন্তু সুপার লিগে অংশ নিচ্ছে এমন কোনো ক্লাবের বর্তমান কোচ নতুন এই টুর্নামেন্টের বিরুদ্ধে অবস্থান নিচ্ছেন, এমনটা ভাবতেও অবাক লাগার কথা। এর আগে এমন নজির স্থাপন করেছিলেন লিভারপুলের কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ। এই জার্মান কোচ যে নিজে এই টুর্নামেন্টের পক্ষে নন, পরোক্ষে তা জানিয়ে দিয়েছেন। এবার একই ইস্যুতে মুখ খুলেছেন ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা। গার্দিওলার মতে, সুপার লিগ কোনো ‘খেলাই নয়’। এর কারণ এখানে সফলতা আগে থেকেই নির্ধারিত থাকবে। মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এটা কোনো খেলাই নয় যখন পরিশ্রম ও পুরস্কারের মধ্যে কোনো সম্পর্ক না থাকে। এটা কোনো খেলা নয়, যখন সাফল্য আগে থেকেই নিশ্চিত থাকে। এটা কোনো খেলাই নয়, যখন হেরে যাওয়াও কোনো ব্যাপার নয়। ’ গার্দিওলার এমন মন্তব্যের পেছনে একটা অকাট্য যুক্তিও আছে। সুপার লিগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের জন্য প্রতি বছর অংশগ্রহণের নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। ফলে বাছাইপর্বের অনিশ্চয়তা এবং আয় নিয়ে কোনো ঝুঁকি নেই। এজন্যই গার্দিওলা বলেন, ‘কোনো একটা দল লড়াই করতেই থাক্লো এবং শীর্ষে পৌছালো, কিন্তু কিন্তু কোয়ালিফাই করতে পারল না, কারণ মাত্র কয়েকটি ক্লাবের জন্য সাফল্য নির্ধারিত। এটা মোটেই ঠিক নয়। ’ নতুন এই টুর্নামেন্টের নিয়ম অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে ১৫টি দল সরাসরি এতে অংশ নিতে পারবে। কিন্তু বাকিদের বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসতে হবে। এই বিষয়টাই মানতে পারছেন না সাবেক বার্সা কোচ গার্দিওলা, ‘মানুষ বলছে ৫টা ক্লাব সেখানে যেতে পারবে এবং প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে, কিন্তু যদি বাকি ১৫টি দল এক মৌসুম খারাপ খেলেও সেখানে সুযোগ পেয়ে যায়, তাহলে কি হবে? এটাকে খেলা বলা যায় না। ’ গার্দিওলা আরও বলেন, তিনিসহ সুপার লিগের অংশগ্রহণে রাজি হওয়া ক্লাবগুলোর কোচরা বিষয়টা নিয়ে বেশ বিব্রত। এ ব্যাপারে ক্লাবের নির্বাহীরা কথা বলার আগেই তাদের মিডিয়ার মুখোমুখি হতে হচ্ছে, জবাব দিতে হচ্ছে বিব্রতকর প্রশ্নের। গার্দিওলা তো এখন পর্যন্ত ১২টি দলের অন্তর্ভুক্তি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। গার্দিওলার সাবেক ক্লাব বার্সেলোনাও সুপার কাপে অংশ নিচ্ছে। কিন্তু তার আরেক ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে। তার আপত্তিটা হলো- সিটি, টটেনহাম এবং আর্সেনাল ১২ দলের অন্তর্ভুক্ত হলো। এই ক্লাবগুলো এখন পর্যন্ত ইউরোপীয় শিরোপা জেতেনি, অথচ চারবারের ইউরোপ সেরা আয়াক্স তালিকায় নেই। বিষয়টা পরিস্কার করার আহ্বান জানিয়েছেন বার্সার সর্বজয়ী দলের এই কোচ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *